এনজিলক ৫০ কিসের ঔষধ। Losartan potassium 50mg

এনজিলক ৫০ কিসের ঔষধ। Losartan potassium 50mg একটি হাই প্রেসারের ঔষধ। এই জাতীয় ঔষধ ২৫ থেকে শুরু করে ৩ টি ধাপে ১০০ মিলিগ্রাম পর্যন্ত হয়ে থাকে। কখন কেন কিভাবে খেতে হয় তা জানতে বিস্তারিত পড়ুন।

এনজিলক ৫০ কিভাবে কাজ করে

লোসারটান বা এনজিলক ৫০ হচ্ছে একটি নতুন প্রজন্মের এন্টিহাইপারটেন্সিভ ড্রাগ, এর প্রথম ড্রাগ, যা এঞ্জিওটেনসিন ২ রিসেপ্টর (টাইপ এটি১) এর এন্টাগনিস্ট । এঞ্জিওটেনসিন ২ একটি অত্যন্ত কার্যকর ভ্যাসোকন্সট্রিকটর যা রেনিন এঞ্জিওটেনসিন সিস্টেম এর প্রাথমিক ভ্যাসোএকটিভ হরমোন। ইহা হাইপারটেনশন প্যাথোফিজিওলজির একটি গুরুত্বপর্ণ উপাদান।

লোসারটান ও তার প্রধান কার্যকর মেটাবোলাইট, এঞ্জিওটেনসিন ২-এর দ্বারা সৃষ্ট রক্তনালী সংকোচন ও এলডোস্টেরন নিঃসরন প্রতিরোধ করে। লোসারটান সুনির্দিষ্টভাবে এঞ্জিওটেনসিন ২-এর সাথে এটি রিসেপ্টর এর বাইন্ডিং প্রতিহত করে একাজ করে। ওসারটিল এখন উচ্চ রক্তচাপের চিকিৎসায় প্রাথমিক ঔষধ হিসেবে স্বীকৃত।

লোসারটান ৫০ ট্যাবলেট এর কাজ কি

লোসারটান ৫০ মিগ্রা ট্যাবলেট- সকল প্রকার উচ্চ রক্তচাপ, ক্রনিক হার্ট ফেইলিওর, উচ্চ রক্তচাপ ও এলভিএইচ রোগীদের স্ট্রোকের রিস্ক কমাতে এবং ডায়াবেটিক নেফ্রোপ্যাথিতে ব্যবহৃত হয়। ইহা এককভাবে অথবা অন্যান্য উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রনকারী ওষুধের সাথে ব্যবহার করা যেতে পারে। এসিই ইনহিবিটর সেবনের পর সৃষ্ট শুদ্ধ কাশির ফলে ঔষধ সেবন বন্ধ হওয়ার ক্ষেত্রে লোসারটান একটি কার্যকর বিকল্প।

ওসারটিল ৫০ ট্যাবলেট খাওয়ার নিয়ম কি?

উচ্চ রক্তচাপ: ওসারটিল বা লোসারটান-এর স্বাভাবিকমাত্রা দৈনিক ৫০ মি.গ্রা.। ২৫ মি.গ্রা. ব্যবহার করা হয় সেসমস্ত রোগীর ক্ষেত্রে যাদের ইন্ট্রাভাসকুলার ভল্যুম ডিপ্লিশন-এর সম্ভাবনা রয়েছে (যেমন -ডাইইউরেটিক গ্রহণকারী) এবং যাদের যকৃতের অসম কার্যকারিতার ইতিহাস আছে।

লোসারটান ৫০ মিগ্রা- দৈনিক ২৫-১০০ মি.গ্রা, এক থেকে দু’বারে দেয়া যেতে পারে। বৃদ্ধ অথবা বৃক্কের অসমকার্যকরি রোগীদের ক্ষেত্রে মাত্রার সামঞ্জস্যের প্রয়োজন নেই। যদি উচ্চ রক্তচাপ কেবলমাত্র ওসারটিল ব্যবহারের ফলে নিয়ন্ত্রিত না হয় তবে নিম্নমাত্রায় ডাইইউরেটিক সহযোগে ব্যবহারযোগ্য। এনজিলক খাবারের সাথে অথবা আলাদাভাবেও খাওয়া যেতে পারে।

ক্রনিক হার্ট ফেইলিওর: লোসারটান-এর স্বাভাবিকমাত্রা দৈনিক ১২.৫ মি.গ্রা.। যদি সহনীয় পর্যায়ে থাকে তবে ১ সপ্তাহের ব্যবধানে মাত্রা দৈনিক ৫০ মি.গ্রা. এ উন্নীত করা যেতে পারে।

উচ্চ রক্তচাপ ও এলভিএইচ রোগীদের স্ট্রোকের রিস্ক কমাতে: লোসারটান-এর স্বাভাবিকমাত্রা দৈনিক ৫০ মি.গ্রা. তবে হাইড্রোক্লোরোথায়াজাইড ১২.৫ মি.গ্রা. সহযোগে ব্যবহারযোগ্য। সর্বোচ্চ মাত্রা– লোসারটান দৈনিক ১০০ মি.গ্রা. এবং হাইড্রোক্লোরোথায়াজাইড ২৫ মি.গ্রা.। ডায়াবেটিক নেফ্রোপ্যাথিঃ লোসারটান-এর স্বাভাবিকমাত্রা দৈনিক ৫০ মি.গ্রা.। সর্বোচ্চ মাত্রা– দৈনিক ১০০ মি.গ্রা.।

এনজিলক ট্যাবলেট এর পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া

লোসারটান বা এনজিলক এর পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া খুবই কম যা প্লাসিবো -এর সঙ্গে তুলনীয়। প্লাসিবো -এর চাইতে ১% বেশী রোগীর ক্ষেত্রে ঘটে এমন পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়ার মধ্যে আপার রেসপিরেটরি ইনফেকশন (৭.৯% বনাম ৬.৯%), মাথা ঝিমঝিম করা (৩.৫% বনাম ২.১%) এবং পায়ে ব্যথা (১.০% বনাম ০.০%) উল্লেখযোগ্য।

লোসারটান সেবনে সতর্কতা

রেনিন এঞ্জিওটেনসিন সিস্টেম -এর মাধ্যমে কাজ করে এমন ঔষধ এর প্রতি যারা স্পর্শকাতর তাদের ক্ষেত্রে ওসারটিল সতর্কতার সঙ্গে ব্যবহার করতে হবে। বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে বৃদ্ধ এবং যকৃতের অসম কার্যকারিতার ক্ষেত্রে। শিশুদের ক্ষেত্রে লোসারটান এর নিরাপত্তা এবং কার্যকারিতা প্রতিষ্ঠিত হয়নি।

লোসারটান ৫০ মিগ্রা এর প্রতিনির্দেশনা

যেসমস্ত রোগী লোসারটান পটাশিয়াম বা এই ট্যাবলেটের কোন উপাদানের প্রতি অতি সংবেদনশীল তাদের ক্ষেত্রে এর ব্যবহার নিষিদ্ধ।

গর্ভাবস্থায় ও স্তন্যদানকালে লোসারটান এর ব্যবহার

গর্ভধারণ নিশ্চিত হওয়া মাত্রই দ্রুত ওসারটিল সেবন বন্ধ করতে হবে। স্তন্যদানকালে লোসারটান ব্যবহার করা যাবে না কারণ মাতৃদুগ্ধ এর সহিত এটি নিঃসৃত হয় কিনা তার কোন তথ্য নেই।

লোসারটান এর ড্রাগ ইন্টার্যাকশন

লোসারটান এর সাথে কোন ইন্টার্যাকশন পাওয়া যায়নি। ক্লিনিক্যাল ফার্মাকোকাইনেটিক ট্রায়ালে যেসমস্ত ঔষধ পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে হাইড্রোক্লোরোথায়াজাইড, ডিগক্সিন, ওয়ারফারিন, সিমেটিডিন, কিটোকোনাজল এবং ফেনোবারবিটাল। ঔষধ বিষয়ক প্রশ্নোত্তর জানতে আমাদের সাথেই থাকুন।

আর পরুন- ভাসোপ্রক্ট কিসের ঔষধ বিস্তারিত জেনে নিন

Leave a Comment

হারবাল ঔষধের জন্য ক্লিক করুন