জক্স সিরাপ ও ট্যাবলেট Zox 500 mg Tablet|Syrup

জক্স সিরাপ Zox Syrup|Tablet 500 mg এর
প্রতিটি ফিল্ম কোটেড ট্যাবলেটে আছে নাইটাজক্সানাইড আইএনএন ৫০০ মি.গ্রা. জক্স ৩০ ও ৬০ মি.লি. সাসপেনশন- প্রতি ৫ মি.লি. সাসপেনশনে আছে নিটাজক্সানাইড আইএনএন ১০০ মি.গ্রা।

নাইটাজক্সানাইড ঔষধের ফার্মাকোলজি

নাইটাজক্সানাইড (Zox Syrup) একটি সিনথেটিক এন্টিপ্রোটোজোয়াল উপাদান। নাইটাজক্সানাইড জি আই টি থেকে ভালভাবে শোষিত হয়। ইহা পাইভেট ফেরেডক্সিন অক্সিডোরিডাক্টেজ (পিএফওআর) এনজাইমের ইলেকট্রন ট্রান্সফার বিক্রিয়ায় বাধাদানের মাধ্যমে কাজ করে থাকে, যা অ্যানারবিক গ্লুকোজ মেটাবলিজমের বিক্রিয়াতে গুরুত্বপূর্ণ। এতে কোষ ফুলে মেমব্রেন ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং প্যারাসাইট অকার্যকর হয়ে পড়ে।

জক্স সিরাপ (zox syrup) কেন খায়

Zox syrup tablet (জক্স সিরাপ) সাধারণত
ক্রিপটোস্পোরাইডিয়াম পারভাম এবং জিয়ারডিয়া লাম্বলিয়া দ্বারা সৃষ্ট ডায়রিয়াতে।
এ্যামেবিয়াসিস ও কৃমির সংক্রমণে ও
শ্লেষ্মাজনিত আমাশয় জক্স খুব কার্যকর।

জক্স সিরাপ (Zox Syrup) খাওয়ার নিয়ম

জক্স সিরাপ বা ট্যাবলেট (Zox Syrup / Tablet) খাওয়ার নিয়ম নিন্মে দেয়া হলো-
১-৩ বছর ৫ মি.লি. (১০০ মি.গ্রা.) করে দিনে ২ বার ৩ দিন।
৪-১১ বছর : ১০ মি.লি. (২০০ মি.গ্রা) করে দিনে ২ বার ৩ দিন।

১২ বছরঃ ২৫ মি.লি. অথবা ১ টি ট্যাবলেট (৫০০ মি.গ্রা) করে দিনে ২ বার ৩ দিন। সাসপেনশন অথবা ট্যাবলেট অবশ্যই খাবারের সাথে খেতে হবে।

জক্স সিরাপের (নাইটাজক্সানাইড) পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কি

জক্স (Zox) সিরাপ (নাইটাজক্সানাইড) সাধারণত সুসহনীয়। তবে কদাচিৎ পেটে ব্যথা, ডায়রিয়া, বমি এবং মাথা ব্যথা হতে পারে।

জক্স সিরাপ (নিটাজক্সানাইড) সেবনে সতর্কতা

জক্স সিরাপ (নাইটাজক্সানাইড) হেপাটিক, রেনাল ও বিলিয়ারী রোগের ক্ষেত্রে অতি সাবধানতার সাথে ব্যবহার করতে হবে।

যে সব ক্ষেত্রে জক্স বা নিটাজক্সানাইড সিরাপ ব্যবহার করা যাবে না

জক্স সিরাপ (নাইটাজক্সানাইড) অথবা এই ফরমুলেশনের যে কোন উপাদানে অতিসংবেদনশীলতায় ইহা প্রতি নির্দেশিত।

গর্ভাবস্থা ও স্তন্যদানকালে জক্স বা নিটাজক্সানাইড সিরাপের ব্যবহার

জক্স বা নিটাজক্সানাইড টয়াবলেট প্রেগনেন্সি ক্যাটাগরি বি এর আওতায়, গর্ভাবস্থায় কেবলমাত্র নিশ্চিত প্রয়োজনীয়তার ক্ষেত্রে ইহা ব্যবহার করা উচিত। যেহেতু অনেক ওষুধ বুকের দুধে নিঃসৃত হয় সেহেতু স্তন্যদানকালে ইহা গ্রহনের সময় সতর্কতার সাথে গ্রহন করা উচিত।

অন্য ওষুধের সাথে জক্স সিরাপের (Zox Syrup) প্রতিক্রিয়া

জক্স সিরাপের (নাইটাজক্সানাইড) প্লাজমা প্রোটিনে খুব বেশী মাত্রায় (> ৯৯.৯ %) যুক্ত হয়। তবে যে সকল ওষুধ প্লাজমা প্রোটিনে খুব বেশী মাত্রায় যুক্ত হয় তাদের সাথে নিটাজক্সানাইড ব্যবহারে সতর্ক হওয়া উচিত মাত্রাধিক্য নাইটাজক্সানাইডের মাত্রাধিক্যের তেমন কোন তথ্য নাই।
সুস্থ মানুষের একক মাত্রায় ৪০০০ মি.গ্রা . ব্যবহারে তেমন কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি।

জক্স সিরাপ/সাসপেনশন প্রস্তুতির নিয়ম

জক্স (Zox suspension) ৩০ মি.লি. সাসপেনশন: পানি মিশানোর আগে বোতল ভাল করে ঝাঁকিয়ে নিবেন, যেন পাউডার জমাট বেঁধে না থাকে। এবারে ৩০ মি.লি. সাসপেনশন প্রস্তুতির জন্য ২০ মি.লি. (সরবরাহকৃত কাপের সাহায্যে) ফুটানো পানি ঠাণ্ডা করে বোতলে ঢেলে নিন, এবং পাউডার সম্পূর্ণ মিশে না যাওয়া পর্যন্ত ঝাঁকিয়ে নিতে পারেন। জক্স (Zox Suspension) ৬০মি.লি. সাসপেনশনঃ ৬০ মি.লি. সাসপেনশন প্রস্তুতির জন্য ৪০মি.লি. (সরবরাহকৃত কাপের সাহায্যে) ফুটানো পানি ঠাণ্ডা করে বোতলে ঢালতে হবে, এবং পাউডার সম্পূর্ণ মিশে না যাওয়া পর্যন্ত ঝাঁকিয়ে নিন। তৈরি হয়ে যাবে জক্স সাসপেনশন, যাকে আমরা সিরাপ বলি।

নিটাজক্সানাইড গ্রুপের আরো কিছু ঔষধের নাম

এডনিক্স (Adnix-500), ডায়ানাইড (Dianide-psf & 500mg tablet), ডিয়ার (Diar-500mg) নিটাসল ট্যাবলেট (Nitasol Tablet & pfs), নিটাইট (Nitide Tablet) ইত্যাদি এগুলো সবই নিটাজক্সানাইড গ্রুপের ঔষধ।

আরো পড়ুন – দাঁতের ব্যথার ঔষধের নাম ও খাওয়ার নিয়ম

Leave a Comment

হারবাল ঔষধের জন্য ক্লিক করুন